আন্তর্জাতিক

প্যারেডে ‘ডুমসডে’ পাঠানো কী পশ্চিমাদের প্রতি পুতিনের হুমকি?

পশ্চিমাদের সতর্ক করতে রাশিয়ার বিজয় দিবসের প্যারেডে ‘ডুমসডে’ পাঠাচ্ছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সোমবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নাৎসি জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়লাভের ৭৭তম বার্ষিকী উদযাপনের প্যারেড অনুষ্ঠিত হবে। ইউক্রেনে যুদ্ধরত অবস্থায় এই প্যারেডে রাশিয়া নিজেদের বিশাল অস্ত্রভাণ্ডার প্রদর্শন করবে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

ইউক্রেনে আক্রমণের কারণে পশ্চিমাদের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়লেও বেপরোয়া পুতিন রেড স্কয়ারে সেনাদের উদ্দেশে ভাষণ দেবেন। যেখানে মহড়ায় থাকবে রুশ সেনা, ট্যাংক, রকেট ও আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেন্ট বাসিলের ক্যাথেড্রালের ওপর দিয়ে একটি ফ্লাই-পাস্ট থাকবে প্যারেডে। এতে অংশ নেবে সুপারসনিক যুদ্ধবিমান, টিইউ-১৬০ কৌশলগত বোমারু। এছাড়া ২০১০ সালের পর প্রথমবার মহড়ায় অংশ নেবে আইআই-৮০ ‘ডুমসডে’ কমান্ড বিমান। এই বিমানটি পারমাণবিক যুদ্ধের সময় রাশিয়ার শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাদের বহন করবে।

পারমাণবিক যুদ্ধের সময় আইআই-৮০ রুশ প্রেসিডেন্টের মধ্য আকাশে বিচরণ করা কমান্ড সেন্টারে পরিণত হবে। এতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি রয়েছে। কিন্তু সুনির্দিষ্ট বিস্তারিত তথ্য রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা।

ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধকে ১৯৪১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নে অ্যাডলফ হিটলারের নাৎসি বাহিনীর আক্রমণে সৃষ্ট পরিস্থিতির মতোই বলে একাধিকবার দাবি করেছেন ৬৯ বছর বয়সী রুশ নেতা পুতিন।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরুর নির্দেশ দেওয়ার সময় পুতিন বলেছিলেন, মহান দেশপ্রেমিক যুদ্ধের সময় আগ্রাসনকারীদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা ভুল হিসেবে প্রমাণিত হয়েছিল, যার ফলে আমাদের অনেক মানুষকে চড়া মূল্য দিতে হয়েছে। দ্বিতীয়বার আমরা এমন ভুল করবো না। এমন ভুল করার অধিকার আমাদের নেই।

ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধকে পুতিন রুশ ভাষাভাষী মানুষদের নাৎসিদের নিপীড়ন থেকে মুক্ত করা এবং ন্যাটোর সম্প্রসারণে রাশিয়ার ওপর মার্কিন হুমকি ঠেকানোর লড়াই বলে দাবি করছেন। ইউক্রেন ও পশ্চিমারা ফ্যাসিবাদের অভিযোগকে অর্থহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে এবং তারা বলছে পুতিন উসকানি ছাড়াই আগ্রাসন যুদ্ধ শুরু করেছেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়নের ২ কোটি ৭০ লাখ মানুষের প্রাণহানি হয়েছিল। যা ওই যুদ্ধে যেকোনও দেশের তুলনায় বেশি। গত কয়েক বছর ধরে পশ্চিমারা সোভিয়েতের বিজয়কে খাটো করার জন্য ইতিহাস সংশোধনের চেষ্টা করছে বলে সমালোচনা করে আসছেন পুতিন।

১৮১২ সালে ফরাসি সম্রাট নেপোলিয়ন বোনাপার্টকে হারানো বাদ দিলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নাৎসি জার্মানিকে পরাজিত করা রাশিয়ার বৃহত্তম সামরিক বিজয়। পশ্চিমাদের বিপর্যয়কর দুটি আক্রমণের পর রাশিয়া নিজেদের সীমান্ত নিয়ে অনেক বেশি সংবেদনশীল হয়ে ওঠে।।

রাশিয়ার বিজয় দিবস উদযাপনে দীর্ঘ ছায়া হয়ে থাকবে ইউক্রেনের যুদ্ধ। চলমান এই যুদ্ধে কয়েক হাজার মানুষের প্রাণহানি ও প্রায় ১ কোটি মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন। এর ফলে পশ্চিমাদের কঠোর নিষেধাজ্ঞায় রাশিয়া প্রায় একঘরে হয়ে পড়েছে। আশঙ্কা বাড়ছে বিশ্বের বৃহত্তম দুটি পারমাণবিক শক্তিধর দেশ রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিস্তৃত দ্বন্দ্ব ছড়িয়ে পড়ার।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, বিজয় দিবসের প্যারেডে রেড স্কয়ারে ১১ হাজার সেনা অংশ নেবে। এতে প্রদর্শন করা হবে ১৩১টি সামরিক সরঞ্জাম।

সোভিয়েত পতনের ক্ষয় ঠেকাতে গত দুই দশক ধরে পুতিনের চেষ্টার পরও ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর দুর্বলতা প্রকাশ্যে এসেছে। যুদ্ধে দ্রুত জয় অর্জন করতে পারেনি রাশিয়া এবং দেশটির অর্থনীতি নিষেধাজ্ঞায় বিপর্যস্ত। যার ফলে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর খারাপ সংকোচনে পড়েছে মস্কো।

দুই দশকের কম সময় আগে মস্কোতে ৯ মে’র উদযাপনে পুতিনের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। অথচ এবার ক্রেমলিন জানিয়েছে, এই বছর কোনও পশ্চিমা নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্র ও দেশটির মিত্ররা ইউক্রেনে অস্ত্র সরবরাহ বাড়িয়েছে। একই সময়ে রুশ সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা পুতিনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন শক্তিশালী অস্ত্র ইউক্রেনে ব্যবহারের অনুমতি দিতে। সশস্ত্র বাহিনীর দুই সূত্র রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছেন। মস্কো বলেছে, ইউক্রেনে পাঠানো পশ্চিমাদের অস্ত্রের চালান তাদের জন্য বৈধ লক্ষ্যবস্তু।

৯ মে ঘিরে মস্কো ও পশ্চিমা রাজধানীগুলোতে জল্পনা ছড়িয়েছিল যে দিনটিতে ইউক্রেন নিয়ে কোনও বিশেষ ঘোষণার প্রস্তুতি নিচ্ছেন পুতিন। ধারণা করা হচ্ছিল, পুতিন আনুষ্ঠানিক যুদ্ধের ঘোষণা অথবা একটি জাতীয় সংহতির ডাক দিতে পারেন।

বুধবার এমন ধারণার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ। তিনি এমন ধারণাকে ‘আজগুবি’ বলে উল্লেখ করেছেন। তবে রেড স্কয়ারে ভাষণে পুতিন কী বলতে পারেন তা সম্পর্কে কিছু জানায়নি ক্রেমলিন।

গত এক বছর ধরে পুতিন পাশ্চাত্যের ব্যতিক্রমবাদের সমালোচনা করেছিলেন। একই সঙ্গে ইউক্রেন নিয়ে কথা বলার সময় তিনি বারবার নব্য নাৎসিবাদ ও রুশবিদ্বেষ পুনরায় ফিরে আসছে বলে উল্লেখ করেছেন।

Source link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Stream TV Pro News - Stream TV Pro World - Stream TV Pro Sports - Stream TV Pro Entertainment - Stream TV Pro Games - Stream TV Pro Real Free Instagram Followers PayPal Gift Card Generator Free Paypal Gift Cards Generator Free Discord Nitro Codes Free Fire Diamond Free Fire Diamonds Generator Clash of Clans Generator Roblox free Robux Free Robux PUBG Mobile Generator Free Robux 8 Ball Pool Brawl Stars Generator Apple Gift Card Best Android Apps, Games, Accessories, and Tips Free V Bucks Generator 2022 Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Free-Fire Roblox Roblox Roblox Roblox Roblox Roblox Roblox Roblox Roblox